তিন মাস পর ফিরেই ব্রাজিলের বিপক্ষে জয়ের নায়ক মেসি

এমন ফেরাটাই হয়তো চেয়েছিলেন ফুটবল জাদুকর! তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাঠে নেমেই আর্জেন্টিনাকে সুপার ক্লাসিকো জয় উপহার দিলেন ফুটবল যাদুকর লিওনেল মেসি।



শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সৌদি আরবের কিং সাউদ ইউনিভার্সিটি স্টেডিয়ামে শুক্রবার প্রীতি ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে ১-০ গোলে জিতেছে আর্জেন্টিনা।

প্রথম ১৫ মিনিটে দুই দলই পেনাল্টি পায় একটি করে। লক্ষ্যভ্রষ্ট স্পট কিকে ব্রাজিলকে হতাশ করেন গাব্রিয়েল জেসুস। ব্যর্থ হতে বসেছিলেন মেসিও। তবে গোলরক্ষক তার শট ঠেকানোর পর আলগা বল জালে ঠেলে দেন বার্সেলোনা তারকা।

জেসুস ব্যর্থ না হলে ম্যাচের শুরুটা দারুণ হতে পারতো ব্রাজিলের। নবম মিনিটে ডি-বক্সে তাকে আর্জেন্টিনার মিডফিল্ডার লেয়ান্দ্রো পারেদেস ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিকে গোলরক্ষককে ঠিকই ফাঁকি দিয়েছিলেন ম্যানচেস্টার সিটি স্ট্রাইকার; কিন্তু শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি। বল পোস্টের বাইরে কানায় লেগে চলে যায়।



চার মিনিট পরই মেসির সেই গোলে উচ্ছ্বাসে মাতে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ডান দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া মেসিকে ফাউল করে বসেন আলেক্স সান্দ্রো। এবারের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের দুর্বল শট রুখে দিয়েছিলেন গোলরক্ষক আলিসন; কিন্তু বল নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি তিনি। ছুটে গিয়ে আলগা বল অনায়াসে জালে পাঠান মেসি।

বিরতির ঠিক আগে পাল্টা আক্রমণে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি। কিন্তু শটে তেমন জোর ছিল না, ঠেকাতে বেগ পেতে হয়নি আলিসনের।



দ্বিতীয়ার্ধের ষষ্ঠ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েছিলেন জেসুস। কিন্তু শট নিতে দেরি করে ফেলেন তিনি। পরে উইলিয়ানের শটও প্রতিহত হয়।

৬৬তম মিনিটে মেসির দারুণ একটি ফ্রি-কিকে বল শেষ মুহূর্তে নিচু হয়ে ক্রসবার ঘেঁষে জালে জড়াতে যাচ্ছিল। লাফিয়ে কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান আলিসন। ১০ মিনিট পর হের্মান পেস্সেইয়ার বুলেট গতির শটও কর্নারের বিনিময়ে রুখে দেন ব্রাজিল গোলরক্ষক।

বল দখলে ব্রাজিল অনেকটা এগিয়ে থাকলেও আক্রমণে আধিপত্য করে আর্জেন্টিনা। শেষ দিকে প্রবল চাপ বাড়ানো দলটি বেশ কয়েকটি ভালো সুযোগও তৈরি করেছিল। কিন্তু স্কোরলাইনে পরিবর্তন আসেনি।



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *